সিলেটSaturday , 3 September 2022
  1. আইন-আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. উপ সম্পাদকীয়
  4. খেলা
  5. ছবি কথা বলে
  6. জাতীয়
  7. ধর্ম
  8. প্রবাস
  9. বিচিত্র সংবাদ
  10. বিনোদন
  11. বিয়ানী বাজার সংবাদ
  12. ব্রেকিং নিউজ
  13. মতামত
  14. মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু
  15. রাজনীতি

নেত্রকোণায় পুলিশ-বিএনপি-আ.লীগ সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মামলা, আসামি ৭৯২

Link Copied!

নেত্রকোণা প্রতিনিধি:
নেত্রকোণা জেলা শহরে এবং মদন উপজেলায় বিএনপি, পুলিশ ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় বিএনপির ৭৯২ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (০১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নেত্রকোণা জেলা শহরের ছোটবাজার এলাকায় বিএনপির ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের সময় নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় নেত্রকোণা মডেল থানায় বিএনপির ৩৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪০০-৫০০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়েছে। ওই দিন রাতে নেত্রকোণা মডেল থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) খন্দকার আব্দুল্লাহ আল আমিন বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

শুক্রবার (০২ সেপ্টেম্বর) এ তথ্য নিশ্চিত করেন নেত্রকোণা মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার শাকের আহমেদ। তিনি জানান, সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে মামলাটি করা হয়েছে। এরই মধ্যে মামলার ১২ আসামিকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নেত্রকোণা জেলা শহরের ছোটবাজার এলাকায় বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের জন্য দলটির নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকেন।
পরে দুপুরে শহরের প্রধান সড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ চেষ্টা চালায়। তখন বিএনপি-কর্মীদের রাস্তায় অবস্থান ঠেকাতে পুলিশ বাধা দেয়। এতে পুলিশ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ ঘটনায় পুলিশসহ অন্তত অর্ধশত লোক আহত হয়।

অপরদিকে জেলার মদন উপজেলায় গত বুধবার সকালে বিএনপির নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিলের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়। এ ঘটনায় ২৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ২৩০ জন বিএনপি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ওই দিন রাতেই মামলা করে পুলিশ।

মদন থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) দেবাশীষ দত্ত বাদী হয়ে মামলাটি করেন। এ মামলার তিন আসামিকে এরই মধ্যে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

মদন থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত (ওসি) মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ওসি জানান, গত বুধবার বিএনপি নেতাকর্মীদের হামলায় পুলিশ আহত হওয়ার ঘটনায় উপজেলা বিএনপির সভাপতি নুরুল আলমকে প্রধান আসামি করে মামলাটি করা হয়। মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার সকালে জেলার মদন উপজেলার শাহপুর ইদগাহ মাঠে বিএনপি নেতাকর্মীরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ মিছিলের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় আওয়ামী লীগের কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে তিন পুলিশসহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়।