সিলেটThursday , 3 November 2022
  1. আইন-আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. উপ সম্পাদকীয়
  4. খেলা
  5. ছবি কথা বলে
  6. জাতীয়
  7. ধর্ম
  8. প্রবাস
  9. বিচিত্র সংবাদ
  10. বিনোদন
  11. বিয়ানী বাজার সংবাদ
  12. ব্রেকিং নিউজ
  13. মতামত
  14. মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু
  15. রাজনীতি

নির্বাচনে ছেলের পরাজয়ের খবর শুনেই মারা গেলেন বাবা

Link Copied!

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:
জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ২নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে অংশ নিয়েছিলেন আজাদ মিয়া নামে এক ব্যক্তি। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কাছে ২৩ ভোটের ব্যবধানে পরাজয় বরণ করতে হয়েছে তাকে। আর এই খবর শুনেই স্ট্রোক করে মারা গেছেন আজাদের বাবা শাহা জামাল (৬৫)। বুধবার (২ নভেম্বর) রাতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ফুলকোচা এলাকার পূর্বপাড়া গ্রামের বাসিন্দা শাহা জামাল শুরু থেকেই ছেলে আজাদ মিয়ার নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন। প্রতিটি গ্রামে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তিনি ছেলের জন্য ভোট চেয়েছেন।

ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে আজাদ মিয়াসহ আরও পাঁচজন নির্বাচনে অংশ নেন। বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। শাহা জামালের ছেলে আজাদ মিয়া তালা প্রতীক নিয়ে ২৭৮ ভোট পান। কিন্তু তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মো. শহিদুল্লাহ টিউবওয়েল প্রতীকে ৩০১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। মাত্র ২৩ ভোটে তার ছেলে মো. আজাদ পরাজিত হওয়ার খবর শুনে নিজ বাড়িতে শাহা জামাল মারা যান।

শাহা জামালের ছেলে মো. আজাদ মিয়া জানান, নির্বাচনের জয়ী হওয়ার জন্য তার বাবা দিনরাত অনেক পরিশ্রম করেছেন। সেজন্য পরাজয়টা মেনে নিতে পারেননি। হেরে যাওয়ার খবরে অনেক বেশি কষ্ট পেয়েছিলেন।

জানা গেছে, বুধবার জামালপুর একটি পৌরসভা ও দুটি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০১৬ সালের ৩ নভেম্বর জামালপুরের হাজরাবাড়ী পৌরসভা গঠনের পর সীমানা জটিলতা কাটিয়ে প্রথমবারের মতো এই পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত। নির্বাচনে মেয়র পদে চার জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৯ জন, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

অন্যদিকে মেলান্দহ উপজেলার আদ্রা ও ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৮ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৭০ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ২৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সবগুলোতেই নৌকার জয়

হাজরাবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ হাজার ৩৫৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সামছুজ্জামান সুরুজ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জগ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু পেয়েছেন ২ হাজার ৮৪৯ ভোট।

এছাড়াও আদ্রা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৭ হাজার ৭৭৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী রফিকুল ইসলাম খোকা।

এদিকে ফুলকোচা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৫ হাজার ৯ ভোট পেয়ে বেসরাকরিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী মামুনুর রশিদ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে : 991 বার