সিলেটThursday , 8 February 2024
  1. আইন-আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. উপ সম্পাদকীয়
  4. খেলা
  5. ছবি কথা বলে
  6. জাতীয়
  7. ধর্ম
  8. প্রবাস
  9. বিচিত্র সংবাদ
  10. বিনোদন
  11. বিয়ানী বাজার সংবাদ
  12. ব্রেকিং নিউজ
  13. মতামত
  14. মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু
  15. রাজনীতি

দুই ইজিবাইক চালকের মরদেহ উদ্ধার

admin
February 8, 2024 5:30 pm
Link Copied!

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি:
হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট ও বানিয়াচং উপজেলা থেকে দুই ইজিবাইক চালকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে চুনারুঘাট উপজেলার উবাহাটা ইউনিয়নের বালিয়াড়ি গ্রামের একটি পুকুর পাড় থেকে ইজিবাইকচালক আতাউর রহমানের (৫৫) গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

অপরদিকে সকাল সাড়ে ৮টায় বানিয়াচং উপজেলার সুজাতপুর ইউনিয়নের চণ্ডীপুর গ্রামের পাশের হাওর থেকে উদ্ধার করা হয় রোমান মিয়া (২২) নামে ইজিবাইকচালকের আগুনে ঝলসানো মৃতদেহ।

জানা যায়- বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার উবাহাটা ইউনিয়নের বালিয়াড়ি গ্রামের একটি পুকুর থেকে আতাউর রহমানের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পুকুরটির অবস্থান এই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এজাজ ঠাকুর চৌধুরী বাড়ির পিছনে। নিহত চালক একই গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।

চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিল্লোল রায় বলেন- বুধবার দিবাগত রাতে ইজিবাইক নিয়ে বের হয়ে রাতে বাড়িতে ফিরেননি আতাউর রহমান। তার স্বজনরা খোঁজাখুজি করেও তাকে পাননি। সকালে চেয়ারম্যানের বাড়ির পুকুর পাড়ে মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। এরপর পুলিশ খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তবে চালকের ইজিবাইক পাওয়া যায়নি। প্রাথমিকভাবে ইজিবাইক ছিনতাইর জন্যই এই হত্যাকাণ্ড বলে ধারণা করা হচ্ছে বলে জানান ওসি হিল্লোল রায়।

অপরদিকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বানিয়াচং উপজেলার সুজাতপুর ইউনিয়নের চণ্ডীপুর গ্রামের পাশে একটি হাওর থেকে উদ্ধার করা হয় রোমান মিয়ার আগুনে ঝলসানো মরদেহ। তবে তার মুখমণ্ডল দেখে স্থানীয়রা পরিচয় শনাক্ত করতে পেরেছেন। রোমান মিয়া এই ইউনিয়নের ইকরাম গ্রামের মৃত শের আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়- বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রোমান মিয়া সন্ধ্যার দিকে সিএনজি নিয়ে বের হলে বৃহস্পতিবার তার লাশটি হাওরের মধ্যে পড়ে থাকতে দেখেন শ্রমিকরা। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার সুজাতপুর তদন্ত কেন্দ্রের একদল পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

এই হত্যাকাণ্ডকেও ইজিবাইক ছিনতাই করার জন্য সংঘটিত হয়েছে বলে প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে জানিয়ে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন বলেন- পুলিশ সিএনজি অটোরিকশা উদ্ধার ও হত্যার কারণ উদঘাটনের জন্য তদন্ত শুরু করেছে। আর সুরতহাল রিপোর্টের পর ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে।