সিলেটTuesday , 5 March 2024
  1. আইন-আদালত
  2. আন্তর্জাতিক
  3. উপ সম্পাদকীয়
  4. খেলা
  5. ছবি কথা বলে
  6. জাতীয়
  7. ধর্ম
  8. প্রবাস
  9. বিচিত্র সংবাদ
  10. বিনোদন
  11. বিয়ানী বাজার সংবাদ
  12. ব্রেকিং নিউজ
  13. মতামত
  14. মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু
  15. রাজনীতি

সিলেটে পতিতা বৃত্তি: অধরা থাকেন হোটেল মালিকরা!

admin
March 5, 2024 11:53 am
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টার:
সিলেটের আবাসিক হোটেলগুলোতে গড়ে উঠেছে ‘মিনি পতিতালয়’। পুলিশ নিয়মিত অভিযান চালালেও এমন অসামাজিক কর্মকাণ্ড কিছুতেই বন্ধ হচ্ছে না নগরজুড়ে। উঠতি বয়সী তরুণী ও নারীদের দিয়ে অবৈধ দেহ ব্যবসা পরিচালনার দায়ে বেশীর ভাগ হোটেলে অভিযানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হোটেল তরুণ-তরুণীসহ হোটেল ম্যানেজারকে আটক করলেও মালিকরা থেকে যাচ্ছেন অধরা। নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, হোটেল মালিকদের আইনের আওতায় না আনলে এমন কর্মকাণ্ড থামবে না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মহানগরের কদমতলী সাকিনস্থ হোটেল সাগর এন্ড রেস্ট হাউজ, তালতলার হোটেল সুফিয়ায় (আবাসিক), দক্ষিণ সুরমার কদমতলি এলাকার কয়েস আবাসিক হোটেল, ওসমানী হাসপাতাল এলাকার হোটেল বাধন আবাসিক, সিলেটের দক্ষিণ সুরমার তিতাস অবাসিক হোটেলসহ অসংখ্য হোটেলে নিয়মিত চলে অবৈধ অসামাজিক কর্মকাণ্ড। পুলিশের নিয়মিত অভিযানে এসব হোটেল থেকে গ্রেফতারও হচ্ছেন নারী-পুরুষ। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে এসব হোটেলের মালিকরা থেকে যাচ্ছেন আড়ালে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দায়িত্বশীলরা বলছেন, নগরীর যেসব হোটেলে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে সেখান থেকে জড়িতদের আটক করা হচ্ছে। পাশাপাশি হোটেল মালিকদের সর্তক করে দেওয়া হচ্ছে। অনেক সময় ব্যবস্থা নেওয়াও হচ্ছে। হোটেলে অসামাজিক কাজ বন্ধে পুলিশ ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি নিয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের মিডিয়া বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, মহানগরীর আবাসিক হোটেলগুলো থেকে অসামাজিক কার্যকলাপ রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। এছাড়াও গোয়েন্দা পুলিশও নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছে। আটককৃতদের প্রত্যাককে মামলা দায়ের করে আদালতেও প্রেরণ করা হচ্ছে। আর হোটেল মালিকদের কড়াভাবে সর্তক করে দেওয়া হচ্ছে। তারা এসব কাজ বন্ধ না করলে প্রয়োজনে হোটেল বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও হুশিয়ারি দেওয়া হচ্ছে।

গত ১৫ দিনের ব্যবধানে নগরীর বিভিন্ন হোটেলে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে অন্তত ৩৭ জন নারী-পুরুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আটককৃতদের বেশীরভাগ ১৮ থেকে ২৬ বছরের। সর্বশেষ রবিবার (৩ মার্চ) রাত নয়টার দিকে মহানগরের কদমতলী সাকিনস্থ হোটেল সাগর এন্ড রেস্ট হাউজ থেকে ১২ তরুণ-তরুণীকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। এর আগে শনিবার (২মার্চ) রাত ৮ টার দিকে সিলেট মহানগরের তালতলার হোটেল সুফিয়ায় (আবাসিক) অভিযান চালিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার দায়ে ৭ যুবক-যুবতীকে আটক করে সিলেট মহানগর ডিবি পুলিশ।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, অসামাজিক কর্মকাণ্ড রোধে পুলিশ ‘জিরো টলারেন্স নীতি’ নিয়ে কাজ করছে। থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশও অভিযান পরিচালনা করছে। ইতিমধ্যে নগরীর সবগুলো হোটেল মালিকদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। যাতে কেউ এ ধরনের কাজে জড়িত না থাকেন। এরপরও বন্ধ না করায় আমরা নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছি। এসব হোটেলের মালিক পক্ষের বিরুদ্ধেও আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে : 991 বার